মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

চিরাম তাহেরা-মান্নান স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয়

  • সংক্ষিপ্ত বর্ণনা
  • প্রতিষ্ঠাকাল
  • ইতিহাস
  • প্রধান শিক্ষক/ অধ্যক্ষ
  • অন্যান্য শিক্ষকদের তালিকা
  • ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা (শ্রেণীভিত্তিক)
  • পাশের হার
  • বর্তমান পরিচালনা কমিটির তথ্য
  • বিগত ৫ বছরের সমাপনী/পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল
  • শিক্ষাবৃত্ত তথ্যসমুহ
  • অর্জন
  • ভবিষৎ পরিকল্পনা
  • ফটোগ্যালারী
  • যোগাযোগ
  • মেধাবী ছাত্রবৃন্দ

অত্র ইউনিয়নে মাধ্যমিক পর্যায়ের কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান না থাকায় ১৯৮৩ ইং সনের শেষের দিকে চিরাম গ্রামের  জনাব, মোঃ খোদা নেওয়াজ ও জনাব জৈন উদ্দিন আহমেদ তাদের অনুপ্রেরণায় উৎসাহিত হয়ে সেনাবাহিনী হইতে অব: প্রাপ্ত জনাব, মোঃ সানোয়ার একটি মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ার উদ্দ্যোগ নেন। গ্রামবাসীর সক্রিয় সহযোতিায় ১৯৮৪ ইং সনে জানুয়ারি মাস থেকে স্বেচ্ছা শ্রমের ভিত্তিতে সাত জন শিক্ষক নিয়ে একটি নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় চালু হয়। জনগনের আমত্মরিক পরিশ্রমের ফলে বিদ্যালয়ের প্রয়োজনীয় কার্যক্রম চলতে থাকে। অত্র গ্রামের তৎকালী ইউনিয়ন বোর্ডের প্রেসিডেন্ট মোঃ আব্দুল মন্নান তালুকদার সাহেবের কণ্যা বেগম শামছুন্নাহার বিদ্যালয়ের জন্য প্রয়োজনীয় জমি ও গৃহ নির্মানের অর্থ দান করার ইচ্ছা পোষণ করেন। তার এই দান গ্রামবাসী সাদরে গ্রহণ করে। বিদ্যালয়ের জন্য ১.৫০ একর ভূমি এবং নগদ অর্থসহ অন্যা্যন্য সহযোগিতা দানের প্রেক্ষিতে বিদ্যালয়টি ১৯৮৫ সনে নিজম্ব স্থানে গৃহ প্রতিষ্ঠিত হয়। এই অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ তার পিতা মৃত-আব্দুল মান্নান তালুকদার এবং মাতা- মৃত তাহেরা খাতুনকে  স্মরনীয় করে রাখার জন্য অত্র বিদ্যালয়ের  নামকরণ করা হয় ‘‘চিরাম তাহেরা-মান্নান স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয়’’। বিদ্যালয়টি ১৯৮৬ সনে নিম্ন মাধ্যমিক হিসাবে স্বীকৃতি লাভ ও এম,পি,ও ভূক্ত হয়। ২০০০ ইং সন থেকে নবম শ্রেণি খোলার অনুমতি এবং ২০০৩ সনে পূর্ণাঙ্গ মাধ্যমিক বিদ্যালয় হিসাবে স্বীকৃতি লাভ করে। উক্ত কাজের জন্য আন্তরিকভাবে সহযোগিতা করেছেন অধ্যাপক মোঃ শাহজাহান কবির, তৎকালীন পরিচালক মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর. ঢাকা এবং জনাব, গোলাম ইয়াহিয়া, তৎকালীন শিক্ষা মন্ত্রীর একান্ত সচিব। উক্ত দুই ব্যক্তির অবদান স্মরনীয় হয়ে থাকবে।    

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল
মোঃ সানোয়ার ০১৭২০০১৮৩৮৩ mdsanewartms@gmail.com

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল

৬ষ্ঠ শ্রেণি-        ৯৫ জন           

৭ম  শ্রেণি-       ৬৭ জন

৮ম শ্রেণি-        ৬৬জন                    

৯ম শ্রেণি-        ৩০ জন

১০ম শ্রেণি-      ৪৮ জন 

৭৭.৭৮%

নিয়মিত কমিটি মেয়াদ উর্ত্তীনের তারিখ ১৪/০৩/২০১৩খ্রিঃ।

জে,এস,সি সমাপনী পরীক্ষা

 

সাল

 পরীক্ষার্থীর সংখ্যা

উত্তীর্ণের সংখ্যা

পাশের হার

২০১০

৪৬

৪৩

৯৩.৪৮%

২০১১

৪৯

৩৪

৬৯.৩৯%

মাধ্যমিক শিক্ষার অগ্রগতির লক্ষ্য বিগত বছরগুলোতে পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল উত্তরোত্তর্উন্নতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে ১০০% ছাত্র ভর্তি নিশ্চিত। ২০১০ সালে জে.এস,সি পরীক্ষার ফলাফল ৯৩.৪৮%। ২০১১ সালের জে,এস,সি পরীক্ষার ফলাফল ৬৯.৩৯%।

প্রশিক্ষন প্রাপ্ত দক্ষ  শিক্ষক,  প্রয়োজনীয় আসবাবপত্র, উর্পযুক্ত শ্রেণি কক্ষ  এবং উপকরণ সরবরাহ করা হলে বিদ্যালয়টিকে আদর্শ মাধ্যমিক  বিদ্যালয় হিসাবে গড়ে তুলা সম্ভব । মাধ্যমিক শিক্ষার মান উন্নয়নের লক্ষ্য পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল ১০০% উন্নতি করতে অঙ্গীকার বদ্ধ।  

বিদ্যালয়টি বারহাট্টা সদর থেকে ১১ কিলোমিটার উত্তর-পূর্বদিকে অবস্থিত। বারহাট্টা হতে চিরাম পর্যন্ত পাকা রাস্তার পূর্ব পাশে আনুমানিক (৫০ গজ) দূরে অবস্থিত । বিদ্যালয়ের যাতায়াত ব্যবস্থা ভাল। উল্লেখিত রাস্তার মাধ্যমে মাইক্রোবাস, বাইসাইকেল বা মটরসাইকেল এবং পায়ে হেটে যাওয়ার সুব্যবস্থা রয়েছে।   

৬ষ্ঠ শ্রেণি ক-শাখা- ১। মোঃ পলাশ মিয়া  , ২। জাহানারা আক্তার ,  ৩। ফারজানা আক্তার ,

         ৭ম শ্রেণি-        ১। মার্জিয়া আক্তার , ২। জান্নাতুল হাসান ৩। আছমা আক্তার ,

৮ম শ্রেণি-        ১। মোঃ এমরান খান , ২। ঝুমা আক্তার, ৩। নাসিম আহম্মেদ,

৯ম শ্রেণি-        ১। তাসলিমা আক্তার ২। শামীমা সুলতানা, ৩। পপি আক্তার,

১০ম শ্রেণি -     ১। চাম্পা আক্তার , ২। মারম্নফা আক্তার ৩। শেফালী আক্তার,